অমর একুশে বইমেলায় দর্শনার্থীদের স্রোত

ডেইলিঢাকানিউজ  ডেস্ক::অমর একুশে বইমেলা কেবল একদিন সকাল ৮টায় শুরু হয়। সেই দিনটি একুশে ফেব্রুয়ারি। ১৯৫২ সালে ভাষার জন্য বাংলার যে সন্তানরা জীবন দিয়েছিলেন, তাদের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে শুক্রবার সকাল থেকে অমর একুশে বইমেলায় দর্শনার্থীদের সমাগম ঘটতে শুরু করেছে। বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে মানুষের সমাগম আরও বাড়বে বলে সংশ্লিষ্টরা আশাবাদী।

একুশের সকালে বইমেলা প্রাঙ্গণ ঘুরে দেখা যায়, রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী উদ্যান ও বাংলা একাডেমিতে চলমান বইমেলার অদূরে শহীদ মিনারে ভাষা শহীদদের শ্রদ্ধা জানিয়ে অনেকেই মেলায় প্রবেশ করছেন। সময় গড়াচ্ছে, আর অল্প অল্প করে মেলায় মানুষের সমাগমও বাড়ছে।

বইমেলা প্রাঙ্গণে দেখা হয় ৯ জন মাদরাসা শিক্ষার্থীর সঙ্গে। তাদের একজন আব্দুল মান্নান বলেন, ‘আজকে শুক্রবার, আবার একুশে ফেব্রুয়ারিও। এ উপলক্ষে মাদরাসা থেকে সকাল ৭টায় থেকে বের হয়েছি। প্রথমে আমরা শহীদ মিনারে গিয়েছিলাম। সেখান থেকে বইমেলাতে এসেছি।তিনি আরও বলেন, ‘আমাদের বেশকিছু পছন্দের বই আছে। কাজী নজরুল ইসলাম ও হুমায়ূন আহমেদের কিছু বই আমাদের পছন্দে রয়েছে। আমরা এগুলো কিনব। দুই-একটা কিনছি এবং ঘুরতেছি-ফিরতেছি কেনার জন্য।

আলো ঘর প্রকাশনার রূপম কুমার দে বলেন, ‘আমরা যারা প্রকাশনা সংস্থার সঙ্গে জড়িত, তাদের কাছে একুশে ফেব্রুয়ারির দিনটা বিশেষ মাহাত্ম বহন করে। আজকের দিনেই মাতৃভাষার জন্য জীবন দিয়েছেন অনেকে। এ দিনকে সামনে রেখেই মেলা শুরু হয়। আজকে সকাল ৮টা থেকে মেলা শুরু হয়েছে। ধীরে ধীরে লোক সমাগমও বাড়ছে। আমরা আশাবাদী, বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে আরও ভিড় বাড়বে, ক্রেতা সমাগম হবে, বিক্রিও জমে উঠবে।

এ মেলার প্রাণ বই। প্রতিদিনই নতুন নতুন বই আসছে মেলায়। বাংলা একাডেমির গত ২০ ফেব্রুয়ারির তথ্যমতে, অমর একুশে বইমেলার প্রথম ১৯ দিনে নতুন বই এসেছে মোট ২ হাজার ৮৮১টি। এর মধ্যে ২০ ফেব্রুয়ারি (বৃহস্পতিবার) এসেছে ১৪৩টি নতুন বই।

বৃহস্পতিবার পর্যন্ত মেলায় আসা নতুন বইয়ের মধ্যে গল্পগ্রন্থ ৩৭৮টি, উপন্যাস ৪৫৬টি, প্রবন্ধগ্রন্থ ১৫৭টি, কাব্যগ্রন্থ ৮৪৪টি, গবেষণাগ্রন্থ ৫৭টি, ছড়ার বই ৫৩ টি, শিশুতোষ গ্রন্থ ১৩০ টি, জীবনীগ্রন্থ ৮৫টি, রচনাবলি ৪টি, মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক গ্রন্থ ১১১টি, নাটক ১৬টি, বিজ্ঞান বিষয়ক গ্রন্থ ৬১টি, ভ্রমণকাহিনী ৫৩ টি, ইতিহাসগ্রন্থ ৬৪টি, রাজনীতি বিষয়ক গ্রন্থ ৮টি, চিকিৎসা-স্বাস্থ্য সংক্রান্ত ১৭টি, বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে লেখা গ্রন্থ ৮৭টি, রম্য-ধাঁধা ২৪টি, ধর্ম বিষয়ক গ্রন্থ ১০টি, অনুবাদ সাহিত্য ৩৩টি, অভিধান ১০টি, সায়েন্স ফিকশন ৪৭টি এবং অন্যান্য বই এসেছে ১৭৬টি।

এবার বাংলা একাডেমি ও সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের প্রায় ৮ লাখ বর্গফুট জায়গায় অনুষ্ঠিত হচ্ছে মেলা। বঙ্গবন্ধুকে উৎসর্গ করা এবারের মেলা। বাংলা একাডেমি প্রাঙ্গণে ১২৬টি প্রতিষ্ঠানকে ১৭৯টি স্টল ও সোহরাওয়ার্দী উদ্যান অংশে ৪৩৪টি প্রতিষ্ঠানকে ৬৯৪টি স্টলসহ মোট ৫৬০টি প্রতিষ্ঠানকে ৮৭৩টি স্টল বরাদ্দ দেয়া হয়েছে। এছাড়া ৩৩টি প্রকাশনা প্রতিষ্ঠানকে ৩৪টি প্যাভিলিয়ন বরাদ্দ দেয়া হয়েছে।

jagonews24

লিটল ম্যাগাজিন চত্বর স্থানান্তর হয়েছে সোহরাওয়ার্দী উদ্যান অংশে। ১৫২টি লিটলম্যাগকে স্টল বরাদ্দ ছাড়াও ছয়টি উন্মুক্ত স্টল রাখা হয়েছে। ২৯ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত চলবে এ মেলা।

ছুটির দিন ছাড়া প্রতিদিন বিকেল ৩টা থেকে রাত ৯টা পর্যন্ত মেলা খোলা থাকবে। ছুটির দিন মেলা খোলা থাকে বেলা ১১টা থেকে রাত ৯টা পর্যন্ত।

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

FaceBook