গাম্বিয়া প্রমাণ করে দিয়েছে মুসলিমদের উপর অত্যাচারে কেউ না কেউ রুখে দাঁড়াবেই

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:: মিয়ানমারের রোহিঙ্গাদের বিরুদ্ধে গণহত্যা বন্ধে ব্যবস্থা নিতে গাম্বিয়ার পক্ষে রায় দিয়েছে আন্তর্জাতিক বিচার আদালত। গত বৃহস্পতিবার দ্যহেগ শহরের আদালতের প্রেসিডেন্ট বিচারপতির আবদুলকাভি আহমেদ ইউসুফের নেতৃত্বে দ্য হেগের স্থানীয় সময় সকাল ১০টায় তিনি আনুষ্ঠানিকভাবে আদালতের আদেশ ঘোষণা শুরু করা হয়।

মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যে সংখ্যালঘু রোহিঙ্গাদের ওপর যে অত্যাচার চালানো হয়েছে গাম্বিয়া সেসব তথ্যপ্রমাণ তুলে ধরেছে তা মানবাধিকার সংগঠনগুলোর প্রতিবেদনে উঠে এসেছে এবং তার বিপরীতে সুস্পষ্ট তথ্য আদালতে উপস্থাপন করতে পারেনি সূচি। এদিকে এই গণহত্যার গ্লানি মাথায় নিয়ে বিশ্ব মানবতার চোখে এখন দাগী আসামি একসময়ের বিশ্ব শান্তির জন্য নোবেলজয়ী মিয়ানমারের নেত্রী অং সান সুচি।

একমাত্র গাম্বিয়াই অং সান সুচি গণহত্যার দায়ে আন্তর্জাতিক আদালতে বিচারের মুখে দাঁড় করিয়েছে। প্রমাণ করে দিয়েছে মুসলিমদের অত্যাচারে কেউ না কেউ রুখে দাঁড়াবেই। শুধু তাই নয়, বিশ্বের বড় বড় নেতারা যখন শুধুই নিন্দা জানিয়ে বিষয়টি পার করে দিচ্ছিল, ঠিক তখনই মিয়ানমারকে গণহত্যার বিচারের মুখে দাঁড় করিয়েছে এই গাম্বিয়া।

মামলার শুনানির সময় বলা হয়েছিল,গাম্বিয়ার বিচারবিষয়ক মন্ত্রী আবুবকর তামবাদু প্রমাণ করে দিলেন,একজন ব্যক্তিই ইতিহাসে ব্যবধান গড়ে দিতে পারেন।

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

FaceBook