বঙ্গবন্ধুর আদর্শে বিশ্বাসী হন দুর্নীতি ছেড়ে দেন: ওবায়দুল কাদের

নিজস্ব প্রতিনিধি:: আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, পকেট কমিটি হলে সুবিধাবাদীদের হাতে চলে যাবে আওয়ামী লীগ। ভোগের লিপ্সা পরিহার করে বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা গড়তে হবে।

রোববার দুুপুরে রাজশাহী নগর আওয়ামী লীগের ত্রিবার্ষিক সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন তিনি। সম্মেলন শেষে নগর আওয়ামী লীগের আগের কমিটি বিলুপ্ত করা হয়। নতুন কমিটিতে আবারও এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটনকে সভাপতি এবং ডাবলু সরকারকে সাধারণ সম্পাদক করা হয়।

সম্মেলনে নেতাকর্মীদের সতর্ক করে ওবায়দুল কাদের বলেন, সিন্ডিকেট করতে পারবেন না। ঘরের মধ্যে ঘর করা যাবে না। মশারির ভেতর মশারি টাঙানো যাবে না। দুঃসময়ের ত্যাগী নেতাকর্মীদের মূল্যায়ন করতে হবে। দয়া করে পকেট কমিটি করবেন না। পকেট কমিটি করে শেখ হাসিনাকে ছোট করবেন না, আওয়ামী লীগকে ছোট করবেন না।

সুবিধাবাদীদের আওয়ামী লীগে জায়গা নেই উল্লেখ করে ওবায়দুল কাদের বলেন, ত্যাগী ও পরীক্ষিত নেতাকর্মীদের নিয়ে কমিটি হবে। গ্রহণযোগ্য নেতৃত্ব দিয়ে আওয়ামী লীগ পরিচালিত হবে। এটাই জননেত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশ।

তিনি বলেন, আওয়ামী লীগে কর্মী কমে যাচ্ছে, নেতা বেড়ে যাচ্ছে। এত নেতার দরকার নেই। আমাদের ত্যাগী নেতা দরকার। মঞ্চের দিকে তাকালেই বোঝা যায়, কত নেতা। বিলবোর্ডে সুন্দর সুন্দর ছবি দেখা যায়; অথচ নেতাকে মানুষ চেনে না। কিন্তু বিলবোর্ডে তার উজ্জ্বল চেহারা।

ওবায়দুল কাদের বলেন, সামনে কঠিন চ্যালেঞ্জ। এই চ্যালেঞ্জ অতিক্রম করতে হবে। মনে রাখতে হবে, বাংলার বাতাসে এখনও ষড়যন্ত্রের গন্ধ। সাম্প্রদায়িক শক্তি শেখ হাসিনা সরকারের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করছে। এই অশুভ শক্তি আন্দোলনে ব্যর্থ, নির্বাচনেও ব্যর্থ। এখন তারা চক্রান্তের পথে সরকার হটানোর ষড়যন্ত্র করছে। তাদের প্রতিহত করতে হবে। বাংলাদেশে আর যেন সাম্প্রদায়িক শক্তি ক্ষমতায় না আসতে পারে সেজন্য আওয়ামী লীগকে ঐক্যবন্ধ হতে হবে।

নেতাকর্মীদের বঙ্গবন্ধুর আদর্শের সৈনিক হওয়ার আহ্বান জানিয়ে ওবায়দুল কাদের বলেন, বঙ্গবন্ধুর সততা ও সাহস থেকে আমাদের শিক্ষা নিতে হবে। ত্যাগের বলিদান, ভোগের লিপ্সা পরিহার করে সত্যিকারের মুজিব সৈনিক হতে হবে। ক্ষমতার দম্ভ ত্যাগ করতে হবে। মনে রাখতে হবে, ক্ষমতা চিরস্থায়ী নয়।

নেতাকর্মীদের মানুষের কাছে গ্রহণযোগ্য হওয়ার আহ্বান জানিয়ে ওবায়দুল কাদের বলেন, যদি বঙ্গবন্ধুর আদর্শে বিশ্বাসী হন, শেখ হাসিনার আদর্শে বিশ্বাসী হবে তবে দুর্নীতি ছেড়ে দেন। সন্ত্রাস-চাঁদাবাজি এবং মাদক ছেড়ে দেন।

মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটনের সভাপতিত্বে সম্মেলনে বিশেষ অতিথি ছিলেন দলের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য আব্দুর রহমান, যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর কবির নানক ও তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ, সাংগঠনিক সম্পাদক ও জাতীয় সংসদের হুইপ আবু সাইদ আল মাহমুদ স্বপন।

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

FaceBook