মৌলভীবাজারে শহীদ জিয়া অডিটোরিয়ামের নামফলক ভাঙ্গল ছাত্রলীগ

স্টাফ রিপোর্টার:: মৌলভীবাজার ঐতিহ্যবাহী সরকারী কলেজের শহীদ জিয়ার নামে স্থাপিত অডিটোরিয়ামের নাম ফলক ভেঙ্গে গুড়িয়ে দিয়েছে ছাত্রলীগ। তাৎক্ষণিক ঘটনার প্রতিবাদ জানিয়ে কলেজ অধ্যক্ষের কাছে স্মারকলিপি দিয়েছে ছাত্রদল। ২৯ আগস্ট   বৃহস্পতিবার দুপুরে মৌলভীবাজার সরকারী কলেজ ক্যাম্পাসে শহীদ জিয়া অডিটোরিয়ামে মিছিলসহকারে শোডাউন দিয়ে ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা এই ভাংচুর চালায়। ঘটনার প্রতিবাদ জানিয়ে ছাত্রদলের জেলা ও সরকারী কলেজ শাখার নেতাকর্মীরা অধ্যক্ষের কাছে স্মারকলিপি দিয়ে দুস্কৃতিকারীদের বিরোধে দ্রুত আইনী পদক্ষেপ ও  শহীদ জিয়ার নামে স্থাপিত অডিটোরিয়ামের নাম ফলকটি পুন:স্থাপনের দাবি জানায়। ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শী কলেজের সাধারণ শিক্ষার্থীরা জানান দুপুরে মৌলভীবাজার জেলা ছাত্রলীগের নেতৃত্বে কলেজ ও উপজেলা ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা জয় বাংলা স্লোগানে মৌলভীবাজার সরকারি কলেজের শহীদ জিয়ার নামে স্থাপিত অডিটোরিয়ামের নাম ফলক ভেঙ্গে গুড়িয়ে দেয়। এরপর ওই নাম ফলকের স্থলে মৌলভীবাজার সরকারি কলেজ অডিটোরিয়াম নাম দিয়ে ব্যানার টানায়। অবশ্য তাৎক্ষণিক টানানো ওই ব্যানারে নীচে লিখা ছিল বাস্তবায়নে বাংলাদেশ ছাত্রলীগ মৌলভীবাজার জেলা শাখা। ন্যাম প্লেইটটি ভাঙ্গার পর উল্লসিত ছাত্রলীগ কর্মীরা আনন্দ মিছিল করে। এসময় তারা জয় বাংলা, জয় বঙ্গবন্ধু, মৌলভীবাজারের মাটি ছাত্রলীগের ঘাটি এরকম নানা স্লোগান দেয়। ন্যাম প্লেইটটি ভাঙ্গার সময় জেলা ছাত্রলীগ সভাপতি আমিরুল হোসেন চৌধুরী আমিন,সাধারণ সম্পাদক মাহবুব আলমসহ জেলা,উপজেলা ও কলেজ ছাত্রলীগ নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন বলে সাধারণ শিক্ষার্থীরা জানান। এসময় পুরো কলেজে ভিতিকর পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়। এই ঘটনার পরপরই খবর পেয়ে কলেজ ক্যাম্পাসে জড়ো হয় ছাত্রদলের জেলা ও কলেজ শাখার নেতাকর্মীরা।

তারা দুপুর ২টার দিকে এই ঘটনার তীব্র প্রতিবাদ ও নিন্দা জানিয়ে কলেজ অধ্যক্ষের কাছে স্মারকলিপি দেয়। এসময় কলেজ ক্যাম্পাসে থমথমে অবস্থা বিরাজ করলে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। স্মারকলিপিতে ছাত্রদল জানায় ১৯৯৫-৯৬ সালে স্থাপিত শহীদ জিয়া নামে স্থাপিত কলেজ অডিটোরিয়ামের ফলক ও ন্যাম প্লেইটটি বে-আইনিভাবে কলেজ কর্তৃপক্ষ ও সাধারণ ছাত্রছাত্রীর সম্মুখেই ছাত্রলীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের প্রত্যক্ষ উপস্থিতিতে ভেঙ্গে ফেলা হয়। যা অত্যন্ত নিন্দনীয় ও দু:খ জনক। আমরা স্বাধীনতার ঘোষক শহীদ রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমান বীর উত্তমের নামে স্থাপিত অডিটোরিয়ামের ন্যাম প্লেইটটি ভেঙ্গে ফেলার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি। দুস্কৃতিকারীদের বিরুদ্ধে দ্রুত আইনী ব্যবস্থা গ্রহন এবং শহীদ রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমান বীর উত্তমের নামে স্থাপিত ন্যাম প্লেইটটি পুন:স্থাপন করার জন্য যথাযথ পদক্ষেপ গ্রহন করার আহবান জানাচ্ছি।স্মারকলিপি প্রদানকালে উপস্থিত ছিলেন কলেজ ছাত্রদলের সাবেক সভাপতি পিপলু আব্দুল হাই, মঞ্জু হক, জেলা ছাত্রদল নেতা মামুন পারভেজ, জেলা ছাত্রদলের সভাপতি রুবেল মিয়া,সাধারণ সম্পাদক আকিদুর রহমান সোহান, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক শাহ আলম,কলেজ ছাত্রদলের যুগ্ম আহবায়ক জনি আহমদ,ছাত্রদল নেতা মো: রিপন মিয়া,জামাদুর রহমান পাপন, দোলোয়ার আহমদ,আব্দুল্লাহ মাহফুজ,মাকনুন আহমদ,তাজুদ আহমদ, রনি আহমদ,বাপ্পি,শুভ, জফির ও জুয়েল প্রমুখ। এবিষয়ে জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক মাহবুব আলম বলেন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে কোন ব্যক্তির নামে অডিটোরিয়াম থাকবে এটা সাধারণ শিক্ষার্থীরা মেনে নেয়নি। যার জন্য সাধারণ শিক্ষার্থীদের নিয়ে জেলা ছাত্রলীগ অডিটোরিয়ামের ন্যাম প্লেটটি ভেঙ্গে মৌলভীবাজার সরকারি কলেজ অডিটোরিয়াম নাম দেয়। এবিষয়ে জেলা ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক আকিদুর রহমান সোহান বলেন ঐতিহ্যবাহী এই কলেজটিতে কলংক ও ন্যাক্কার জনক অধ্যায়ের যাত্রা শুরু করল ছাত্রলীগ। আমরা তাদের এই হীনমন্য ও ঘৃণিত কর্মের তীব্র নিন্দা ও ধিক্কার জানাই। আমরা চাইব কলেজ প্রশাসন সাধারণ শিক্ষার্থীদের কথা বিবেচনায় নিয়ে ভেঙ্গে দেওয়া ন্যাম প্লেটটি যেন দ্রুত পুন:স্থাপন করেন। অন্যথায় কঠোর আন্দোলনের মাধ্যমে তা অবশ্যই বাস্তবায়ন করব। মৌলভীবাজার সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর ড. মোঃ ফজলুল আলী বলেন অডিটোরিয়ামের ন্যাম প্লেটটি কে বা কারা ভেঙ্গেছে আমি তা জানিনা। তবে ছাত্রদলের স্মারকলিপি প্রদানের সত্যতা নিশ্চিত করে তিনি বলেন এবিষয়টিতে প্রশাসন অবগত আছে। আমরাও প্রদক্ষেপ নেব। এদিকে ঐতিহ্যবাহী মৌলভীবাজার সরকারী কলেজে স্বাধীনতার ঘোষক শহীদ রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমান বীর উত্তমের নামে স্থাপিত ন্যাম প্লেইটটি জোরপূর্বক ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা ভেঙ্গে ফেলার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন মৌলভীবাজার জেলা বিএনপির সভাপতি ও সাবেক এমপি এম নাসের রহমান ও সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান ভিপি মিজানুর রহমান।

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

FaceBook