যুক্তরাষ্ট্রে ‘আজীবন সম্মাননা’ পেলেন প্রিয়দর্শিনী মৌসুমী

ডেইলিঢাকানিউজ ডেক্স:: দেশের মাটিতে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারসহ দেশের বিভিন্ন সংগঠন কর্তৃক নানান ধরনের সম্মাননায় ভূষিত হয়েছেন প্রিয়দর্শিনী মৌসুমী। কিন্তু দেশের বাইরে এবারই প্রথম তিনি ‘আজীবন সম্মাননায়’ ভূষিত হলেন। আর এই সম্মাননাকে মৌসুমী তার জীবনের অন্যতম একটি অর্জন বলেও বিবেচিত করছেন।

১৬ জুন মৌসুমীকে আজীবন সম্মাননায় ভূষিত করে ‘আমেরিকা-বাংলাদেশ প্রেসক্লাব’। সেদিন সংগঠনের বার্ষিক বনভোজনে এ সম্মাননা তুলে দেয়া হয়।

কার্যকরী কমিটির নেতাদের সাথে নিয়ে সম্মাননা তুলে দেন ক্লাবের সভাপতি দর্পণ কবীর, সাবেক সভাপতি নাজমুল আহসান, সাধারণ সম্পাদক শাহাব উদ্দিন সাগর।

এ সময় মৌসুমীর স্বামী নায়ক ওমর সানী, প্রেসক্লাবের সহসভাপতি বেলাল আহমেদ, কলামিস্ট আবু জাফর মাহমুদ উপস্থিত ছিলেন। প্রেসক্লাবের বনভোজন অনুষ্ঠিত হয় লং আইল্যান্ডের হ্যাকশেয়ার পার্কে।

অনুষ্ঠানে আজীবন সম্মাননা দেয়ার পাশাপাশি মৌসুমীকে ক্লাবের সম্মানিত সদস্য পদ প্রদান করা হয়। আজীবন সম্মাননা ও প্রেসক্লাবের সদস্যপদ দেয়ার মৌসুমী বলেন, দেশের বাইরে আমি সম্মাননা পেয়ে সত্যিই অনেক আনন্দিত, উচ্ছসিত। এ সম্মাননা আমি বহন করে নিয়ে যাবো বাংলাদেশে। প্রেসক্লাবের এ সম্মাননা আমার সফলতার পালকে একটি উজ্জ্বল সংযোজন। আমি শুধু খুশিই নয় প্রেসক্লাবের প্রতি কৃতজ্ঞও, যা আমি আজীবন স্মরণ রাখবো। আজ আমার নতুন পরিচয় আমি আমেরিকা-বাংলাদেশ প্রেসক্লাবের একজন সম্মানিত সদস্য যা আমার জন্য অত্যন্ত গৌরবের।

ওমর সানী বলেন, আজ আমেরিকা-বাংলাদেশ প্রেসক্লাব একজন যোগ্য মানুষকে, যোগ্য নায়িকাকে সম্মান জানিয়েছে। যাতে আমি ব্যক্তিগতভাবে খুশি। আমি সবসময় মনে করি সাংবাদিকরা আমার পরিবারের সদস্য বা আমি সাংবাদিকদের পরিবারের সদস্য। এতদিন আমি সেটি মনে করলেও আজ প্রবাসের মাটিতে তার প্রমাণ নিয়ে দেশে ফিরছি আমরা দু’জনই।

আমেরিকা-বাংলাদেশ প্রেসক্লাব প্রতিষ্ঠিত হয় ২০০৮ সালে। গেত ঈদে ওমর সানী ও মৌসুমী অভিনীত ‘নোলক’ সিনেমাটি মুক্তি পায়। আগামী ২২ জুন তাদের ঢাকায় ফেরার কথা রয়েছে।

 

 

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

FaceBook